সব উপকূলীয় এলাকায় তিন নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। ফাইল ছবি

সাগরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

বজ্রমেঘের ঘনঘটা বাড়ার কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২০ আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২০
প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২০ আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:২০


সব উপকূলীয় এলাকায় তিন নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) বজ্রমেঘ সৃষ্টির কারণে দেশের চার সমুদ্রবন্দর, সব উপকূলীয় এলাকায় তিন নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া নদীবন্দরগুলোকে দুই নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে, বজ্রমেঘের কারণে ২৭ ফেব্রুয়ারি, বুধবার সকালে রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলায় ঝড়ো হাওয়াসহ মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হয়েছে। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হয়।

আবহাওয়া অধিদফতরের সতর্ক বার্তায় বলা হয়, বজ্রমেঘের ঘনঘটা বাড়ার কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এ জন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া নদীবন্দরগুলোকে দুই নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, ‘বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি বেড়ে গেছে। এ কারণে বায়ুমণ্ডল অস্থির হয়ে পড়েছে। সৃষ্টি হচ্ছে বজ্রমেঘ। এই মেঘের কারণে বজ্রপাতসহ বৃষ্টি হচ্ছে। বজ্রপাতের কারণে উপকূলীয় এলাকায় দমকা হাওয়াসহ ঝড়ো বাতাস বয়ে যেতে পারে। তাই সব সমুদ্রবন্দর এবং উপকূলীয় জেলাগুলোর জন্য তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেওয়া হয়েছে।’

প্রিয় সংবাদ/রুহুল