জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা ইয়ান কগনিটো। ছবি: সংগৃহীত

শো চলাকালীন মঞ্চেই ব্রিটিশ কমেডিয়ানের মৃত্যু

অনেকটা সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও কগনিটো উঠছেন না দেখে কেমন একটা সন্দেহ হয় শো’র পরিচালক অ্যান্ড্রু বার্ডের। এরপর ব্যাপারটা কী পরীক্ষা করতে গিয়ে তিনি দেখেন মারা গেছেন এই শিল্পী।

শামীমা সীমা
সহ সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ২২:১৪ আপডেট: ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ২২:১৪
প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ২২:১৪ আপডেট: ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ২২:১৪


জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা ইয়ান কগনিটো। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) মানুষকে হাসিয়ে বিনোদন দেওয়া অবস্থায় পরলোকে পাড়ি দিলেন ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা ইয়ান কগনিটো। বিবিসির প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, মঞ্চে পারফর্ম করা অবস্থায় ৬০ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেছেন বিখ্যাত এই কমেডিয়ান।

বাইসেস্টারের দ্য অ্যাটিক বারে চলছিল দ্য লোন উল্ফ কমেডি ক্লাবের শো। একটা টুলে বসে নানা কথাবার্তার মধ্যে দিয়ে দর্শকদের আনন্দ দিচ্ছিলেন কগনিটো। একবার কথায় কথায় বলেছিলেনও, ‘ধরুন আমি যদি মরে যাই!’ এর কিছুক্ষণ পরেই তিনি যখন টুল থেকে মুখ থুবড়ে মঞ্চে পড়ে যান, দর্শক বিভ্রান্ত হন স্বাভাবিকভাবেই।

ইয়ান কগনিটো। ছবি: সংগৃহীত

সংবাদে প্রকাশ, মিনিট পাঁচেক ধরে ক্রমাগত হেসেই চলেন দর্শকরা। কিন্তু অনেকটা সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও কগনিটো উঠছেন না দেখে কেমন একটা সন্দেহ হয় শো’র পরিচালক অ্যান্ড্রু বার্ডের। এরপর ব্যাপারটা কী পরীক্ষা করতে গিয়ে তিনি দেখেন মারা গেছেন এই শিল্পী।

এ পরিস্থিতিতে শোতে উপস্থিত দুই নার্স অভিনেতার বুকে পাম্প করে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেন। সেই সঙ্গে খবর দেওয়া হয় অ্যাম্বুলেন্সকেও। অ্যাম্বুলেন্স এলে ডাক্তার পরীক্ষা করে কগনিটোকে মৃত ঘোষণা করেন।

শো’র পরিচালক অ্যান্ড্রু বার্ড এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘যখন কগনিটোর নিস্পন্দ শরীরটা উল্টে সোজা করছি, তখনো মনে হচ্ছিল, এই বুঝি বলে উঠবে—বুউউ। ভয় দেখিয়ে চমকে দেবে সবাইকে। কয়েক দিন ধরেই তার শরীরটা খারাপ ছিল। আমরা শো করতে নিষেধ করেছিলাম। কিন্তু সে শোনেনি, স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে অসুস্থতা নিয়ে মজা করছিল, চলেও গেল তার মাঝেই।’

সূত্র: বিবিসি

প্রিয় বিনোদন/আজাদ চৌধুরী