দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, জয়পুরহাট ও ফেনী জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন। প্রতীকি ছবি

বাবা-মেয়েসহ পাঁচ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৯

বৃহস্পতিবার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়েসহ ৯ জন নিহত হয়েছেন।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪৯
প্রকাশিত: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪৯ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪৯


দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, জয়পুরহাট ও ফেনী জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন। প্রতীকি ছবি

(ইউএনবি) দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, জয়পুরহাট ও ফেনী জেলায় ১৭ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়েসহ ৯ জন নিহত হয়েছেন।

দিনাজপুর-ফুলবাড়ী সড়কে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় ইজিবাইক আরোহী বাবা-মেয়েসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ইজিবাইকের আরও দুই আরোহী।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দিনাজপুর সদর উপজেলার চুনিয়াপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন—নাটোর জেলার বাঘাতিপাড়া উপজেলার জামালপুর গ্রামের আফসার আলীর ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩৫), তার মেয়ে আইভি (১০) এবং ইজিবাইক চালক সাজদার আলী (৪৮)।

দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেদওয়ানুর রহিম জানান, যাত্রীবাহী ইজিবাইকটি দিনাজপুর শহরে যাচ্ছিল; পথে চুনিয়াপাড়া এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস ইজিবাইকটিকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ইজিবাইকের তিন আরোহী নিহত হন। আহত হন ইজিবাইকের অপর দুই যাত্রী।

আহত মোস্তাফা কামাল (৩৮) ও আফসার আলীকে (৭০) দিনাজপুর এম. আবদুল রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহগুলো হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

এদিকে পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার বাইপাস এলাকায় বিআরটিসির একটি বাস মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে আরোহী আবু সাঈদ (২৮) আহত হন। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বোদা থানার ওসি (তদন্ত) আবু সায়েম মিয়া জানান, বাসটিকে হাইওয়ে পুলিশ আটক করেছে। তবে চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল ও কসবা উপজেলায় পৃথক দুর্ঘটনায় তিন জন নিহত হয়েছেন।

হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হোসেন সরকার জানান, দুপুরে মহাসড়কের বেড়তলা এলাকায় ঢাকাগামী একটি প্রাইভেট কার ব্রাহ্মণবাড়িয়ামুখী মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই শহরের পৈরতলার তৌহিদ মিয়ার ছেলে নাহিদ ও সরকারপাড়ার মুর্তজার ছেলে পারভেজ নিহত হন। প্রাইভেট কারটি আটক করা গেলেও চালক পালিয়ে গেছেন।

অপরদিকে আখাউড়া রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কান্তি দাশ জানান, সকালে কসবার নোয়াপাড়া এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় হারুন মিয়া (৪২) নামে এক ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন।

জয়পুরহাট সদর উপজেলার ‘হেলকুন্ডা’ এলাকার একটি অটোরাইস মিলের কাছে দুপুর ১২টার দিকে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেলে এর আরোহী রাকিব হোসেন (২৩) নিহত হন। নিহত রাকিব জয়পুরহাট পৌর এলাকার বামনপুর মহল্লার পল্লব ওরফে শাহীনের ছেলে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. মমিনুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের দাগনভূঞা উপজেলায় সকালে কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে অ্যাম্বুলেন্সের সহকারী রুবেল (২৫) নিহত হয়েছেন। তিনি দাগনভূঞা উপজেলার সুমনের ছেলে বলে জানিয়েছেন দাগনভূঞা থানার ওসি সালেহ আহমেদ।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...