ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি

বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষায় বসা হলো না তানভীরের

তানভির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের এবং শহীদুল্লাহ হলের আবাসিক ছাত্র।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩ মে ২০১৯, ১৩:১৬ আপডেট: ০৩ মে ২০১৯, ১৩:১৬
প্রকাশিত: ০৩ মে ২০১৯, ১৩:১৬ আপডেট: ০৩ মে ২০১৯, ১৩:১৬


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এক সদস্যের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে থানায় গেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্র। ফলে ৩ মে শুক্রবার অনুষ্ঠেয় ৪০তম বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষায় বসা হয়নি তার।

তানভির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের এবং শহীদুল্লাহ হলের আবাসিক ছাত্র। গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠির রাজাপুরে। বিসিএস পরীক্ষায় সেও একজন পরীক্ষার্থী ছিল। তবে থানা হেফাজতে থাকায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেননি তিনি।

৩ মে, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় খোঁজ নেওয়া হলে কর্তব্যরত কর্মকর্তা জানান, ওই ছাত্র শাহবাগ থানার হেফাজতে রয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জানা গেছে, ২মে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর তেজতুরি বাজার এলাকায় সেনা সদস্যের গাড়ি এবং ঢাবি ছাত্র তানভির আহম্মেদের মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। দুই গাড়ির সংঘর্ষের পর উভয় পক্ষ তর্কে জড়ান। এক পর্যায়ে মোটর সাইকেল আরোহী তানভিরকে পুলিশের সহায়তায় থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

তানভিরের দাবি, সেনা সদস্যের গাড়ি তাকে ধাক্কা দিয়েছেন। অপরদিকে সেনা সদস্যের দাবি, ঢাবি ছাত্র তার গাড়িতে ধাক্কা দিয়েছেন।

এদিকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী জানান, পুলিশের সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত-বিশ্লেষণ করছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ওই ছাত্র নির্দোষ হলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ঢাকসুর ভিপি নুরুল হক নূর বলেন, ‘বিষয়টি খুবই উদ্বেগের। তুচ্ছ ঘটনায় এভাবে একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও পরীক্ষার্থীকে গ্রেফতার, মামলা দেওয়া আবার আদালতে পাঠানো রীতিমতো ক্ষমতার অপব্যবহার। আমরা দেখেছি ক্ষমতা দেখিয়ে এর আগেও ঢাবি শিক্ষার্থীদের হয়রানি করা হয়েছে। এবার আমরা আন্দোলনে যাব।’

প্রিয় সংবাদ/রুহুল