বিরাট কোহলির সঙ্গে মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি: সংগৃহীত

ধোনির এক কথায় বদলে গিয়েছিল ভারতের ওয়ানডে দল

২০০৭-০৮ সালের দিকে এক টোটকায় ভারতের ওয়ানডে দলের সব ক্রিকেটারের মানসিকতা বদলে দিয়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৪ মে ২০১৯, ২১:২৯ আপডেট: ১৪ মে ২০১৯, ২১:২৯
প্রকাশিত: ১৪ মে ২০১৯, ২১:২৯ আপডেট: ১৪ মে ২০১৯, ২১:২৯


বিরাট কোহলির সঙ্গে মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) অনুশীলনে দেরি করার শাস্তি কী হতে পারে? ভারত ক্রিকেট দলের সাবেক মনোবিদ প্যাডি আপটন প্রশ্ন করেছিলেন ক্রিকেটারদের। ভারতের তৎকালীন টেস্ট অধিনায়ক অনিল কুম্বলে একটি উত্তর দিয়েছিলেন। কিন্তু কুম্বলের উত্তরের চেয়ে ওয়ানডে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির দেওয়া উত্তর বেশি মনে ধরেছিল দক্ষিণ আফ্রিকার এই মনোবিদের। আর ধোনির সেই টোটকাতেই নাকি বদলে গিয়েছিল ভারতের ওয়ানডে দল।

প্যাডি আপটনের বই ‘দ্য বেয়ারফুট কোচ’ ইতোমধ্যেই আলোড়ন তৈরি করেছে। এই বইয়ের মাধ্যমে অনেক অজানা তথ্য সবাইকে জানিয়েছেন তিনি। এই বইটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ধোনিকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই মনোবিদ।

২০০৭-০৮ সালের দিকে আপটন যখন ভারত দলের মনোবিদ হিসেবে কাজ শুরু করেন, তখন ভারতের টেস্ট অধিনায়ক ছিলেন অনিল কুম্বলে। আর ওয়ানডে অধিনায়কের দায়িত্ব ছিল ধোনির কাঁধে। একদিন অনুশীলনের ফাঁকে আপটন ভারতের ক্রিকেটারদের উদ্দেশে বলেন, অনুশীলন ও টিম মিটিংয়ে সময় মতো আসা উচিত। কেউ যদি দেরি করে আসে, তাহলে তার কী শাস্তি হওয়া উচিত?

উত্তরে কুম্বলে বলেছিলেন, যে দেরি করে আসবে, তাকে ১০ হাজার রুপি জরিমানা দিতে হবে। ধোনিকেও একই প্রশ্ন করেছিলেন আপটন। জবাবে ধোনি বলেছিলেন, কেউ যদি দেরি করে আসে তাহলে দলের প্রত্যেককে ১০ হাজার করে রুপি জরিমানা দিতে হবে।

টিম স্পিরিট ব্যাপারটা কেমন হওয়া উচিত, ধোনিই সেটা সবচেয়ে ভালো বুঝতেন। আর সেই ভাবনা দলের সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতেন ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই অধিনায়ক। আপটন বলেন, ‘ধোনির ওই কথা শুনে ওয়ানডে দলের কেউ-ই আর কোনোদিন অনুশীলন ও টিম মিটিংয়ে আসতে দেরি করেনি।’ নিজের বই প্রকাশের অনুষ্ঠানে ধোনির আরও অনেক গুণাবলী নিয়েই কথা বলেন বিখ্যাত এই মনোবিদ।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...