২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ওয়াহাব রিয়াজ। ছবি: সংগৃহীত

‘স্বপ্ন’ দেখেই বিশ্বকাপ দলে ওয়াহাব রিয়াজ!

বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়াটাকে রীতিমতো ‘ছেলের হাতের মোয়া’ বানিয়ে ফেলেছেন পাকিস্তানের বাঁহাতি এই পেসার।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯, ১৫:৩৭ আপডেট: ২২ মে ২০১৯, ১৫:৩৭
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৯, ১৫:৩৭ আপডেট: ২২ মে ২০১৯, ১৫:৩৭


২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ওয়াহাব রিয়াজ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ক্রিকেট বিশ্বকাপ হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদার লড়াই। বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়াটাও তাই ‘ছেলের হাতের মোয়া’ নয়। যোগ্যতা, সামর্থ্য, অভিজ্ঞতা, ধারাবাহিকতা, পারফরম্যান্সসহ আরও অনেক কিছু বিবেচনা করে একজন ক্রিকেটারকে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কিন্তু সেই বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়াটাকে রীতিমতো ‘ছেলের হাতের মোয়া’ বানিয়ে ফেলেছেন ওয়াহাব রিয়াজ। পাকিস্তানের এই অভিজ্ঞ পেসার জানিয়েছেন, ‘স্বপ্ন’ দেখেই ওয়ানডে বিশ্বকাপের দলে ডাক পেয়েছেন তিনি!

ওয়াহাব রিয়াজের এমন দাবি অবশ্য অযৌক্তিক কিছু নয়। কারণ দুই বছর আগে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন বাঁহাতি এই পেসার। এরপর ইনজুরি ও ফর্মহীনতার কারণে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েন তিনি। কেবল তাই নয়; ঘরোয়া ক্রিকেটেও সেভাবে আলো ছড়াতে পারেননি অভিজ্ঞ এই পেসার। তবুও আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের দলে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়ার পরই ওয়াহাব রিয়াজ জানিয়েছেন, আবারও নজর কাড়তে আশাবাদী তিনি। সেই সঙ্গে জানান, সম্প্রতি তার দেখা এক স্বপ্নের কথা। বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়ায় সেটা সফল হয়েছে বলেও মনে করছেন ৩৩ বছর বয়সী এই পেসার।

মঙ্গলবার লাহোরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ওয়াহাব রিয়াজ বলেন, ‘কয়েকদিন আগে আমি এটা স্বপ্নে দেখেছিলাম। যেখানে পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হক আমাকে ডাকছেন। বিশ্বকাপে আমাকে সুযোগ দিয়ে বলেন, এটাই তোমার শেষ সুযোগ। সেই স্বপ্নটা সত্যি হওয়ায় দারুণ লাগছে। বাবার কথা খুব মনে পড়ছে। তিনি আজ নেই। তিনি সবসময় চাইতেন, আমি যেন পাকিস্তানের হয়ে সব চেয়ে বেশিবার বিশ্বকাপে প্রতিনিধিত্ব করতে পারি।’

এবারের বিশ্বকাপে পাকিস্তানের পেস আক্রমণের বড় দায়িত্ব নিয়ে মুখিয়ে আছেন ওয়াহাব রিয়াজ। এক্ষেত্রে ইংল্যান্ডে টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা বিশ্বকাপে কাজে লাগবে জানিয়ে বাঁহাতি এই পেসার বলেন, ‘এ বার বিশ্বকাপ দলে নির্বাচিত হওয়ায় একটা বড় দায়িত্ব সামলাতে হবে। কারণ দলে সুযোগ পাওয়ার একটা বড় কারণ আমার অভিজ্ঞতা। ইংল্যান্ডে হয়তো বেশি ওয়ানডে ম্যাচ খেলিনি। কিন্তু সেখানে টেস্ট ম্যাচে খেলার অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে। ওখানকার পরিবেশ ও পিচ সম্পর্কে আমার ধারণা রয়েছে।’

প্রিয় খেলা/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...