লর্ডসে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ। ছবি: সংগৃহীত

মান-সম্মান বাঁচাতে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিট কেনার অনুরোধ!

আরও একবার যেন বিব্রতকর পরিস্থিতির সামনে পড়তে না হয়, সে জন্য আগেভাগেই টনক নড়েছে এমসিসির।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৪ জুলাই ২০১৯, ১০:১৭ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০১৯, ১০:১৭
প্রকাশিত: ০৪ জুলাই ২০১৯, ১০:১৭ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০১৯, ১০:১৭


লর্ডসে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ২০১৭ সালের নারী বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে হোম অব ক্রিকেট নামে খ্যাত লর্ডসে মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড ও ভারত। ওই ফাইনাল ম্যাচে পুরো গ্যালারি ভরা থাকলেও প্যাভিলিয়নে ছিলেন কয়েকজন মাত্র দর্শক।

ব্যালকনির ঠিক পাশেই, অর্থাৎ ব্যালকনি থেকে বের হয়ে যে পথ দিয়ে ক্রিকেটারেরা মাঠে ঢোকেন, সেটির পাশেই লর্ডসের প্যাভিলিয়ন। এ প্যাভিলিয়নে সাধারণ দর্শকদের প্রবেশাধিকার নেই। কেবল এমসিসির সদস্যরাই এখানে বসে ম্যাচ দেখার সুযোগ পান। লর্ডসে ম্যাচ হলে প্যাভিলিয়নে সব সময়ই সরব উপস্থিতি থাকে এমসিসির সদস্যদের। কিন্তু নারী বিশ্বকাপের ফাইনালে অনুপস্থিত ছিলেন মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) সদস্যরাই।

বিষয়টা এমসিসির বৈশ্বিক ভাবমূর্তির জন্য মোটেও সুখকর ছিল না। এবার বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তির আশঙ্কায় আছে এমসিসি কর্তৃপক্ষ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফ জানাচ্ছে, এশিয়ার দুই দলের এ ম্যাচে সদস্যদের জন্য নির্ধারিত টিকিটের অর্ধেকই নাকি এখনো বিক্রি হয়নি!

আরও একবার যেন বিব্রতকর পরিস্থিতির সামনে পড়তে না হয়, সে জন্য আগেভাগেই টনক নড়েছে এমসিসির। যারা এখনো টিকিট কেনেননি, তাদের প্রত্যেককে টিকেট কেনার অনুরোধ জানিয়ে মেইল করেছে এমসিসি কর্তৃপক্ষ। সদস্যদের উদ্দেশে করে একটি কলামও লিখেছেন এমসিসির সেক্রেটারি ও প্রধান নির্বাহী গাই ল্যাভেন্ডার।

ওই কলামে ল্যাভেন্ডার লিখেছেন, ‘সদস্যদের হয়তো ২০১৭ সালের নারী বিশ্বকাপের ফাইনালের কথা মনে আছে। মাঠের বাকি অংশের দর্শকসংখ্যা ও প্যাভিলিয়নে উপস্থিত সদস্যদের সংখ্যা নিয়ে অপ্রীতিকর তুলনার মুখে পড়তে হয়েছিল সেবার এমসিসিকে। এ ঘটনা এমসিসির বৈশ্বিক ভাবমূর্তির জন্য ক্ষতিকর। একই দৃশ্য যেন আগামী শুক্রবারের ম্যাচেও না হয়, সেটি নিশ্চিত করতে এমসিসি বদ্ধপরিকর।’

কিন্তু তাও যদি সদস্যরা মাঠে না আসেন? সে ক্ষেত্রে আগেভাগেই বিকল্প ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছে এমসিসি। টিভি ক্যামেরায় যেন ফাঁকা প্যাভিলিয়ন না দেখা যায়, সে কারণে ২৫০ জন স্কুলপড়ুয়া শিক্ষার্থীকে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ মাঠে বসে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছে এমসিসি কর্তৃপক্ষ। এই প্রথমবারের মতো সদস্য ছাড়া অন্য কেউ প্যাভিলিয়নে বসে খেলা উপভোগের সুযোগ পাচ্ছে।

৫ জুলাই, শুক্রবার লর্ডসে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ম্যাচটি। আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হেরে যাওয়ায় বাংলাদেশের সেমিফাইনালের স্বপ্ন শেষ। পাকিস্তানের এখনো অবশ্য কিছুটা স্বপ্ন বেঁচে রয়েছে তবে তার জন্য করতে হবে অসাধ্য সাধন, বাংলাদেশকে হারাতে বিশাল ব্যবধানে! সবমিলিয়ে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচটা দুদলের জন্যই হবে কেবল আনুষ্ঠানিকতার।  

প্রিয় খেলা/আশরাফ