মুশফিককে সবুজ সংকেত

সমকাল প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:০৫

মাহমুদুল্লাহকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ফোকাস করতে। সাকিব আল হাসান নিষেধাজ্ঞায় পড়ে খেলার বাইরে। ইমরুল কায়েস প্রতিযোগিতায় নেই। সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে বাকি থাকলেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। বিসিবির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পছন্দ-অপছন্দেরও ব্যাপার আছে। সব মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াড গড়া নিয়ে হিশশিম খাওয়ার মতো অবস্থা জাতীয় দল নির্বাচকদের। এ অবস্থায় মুশফিককে না ফেরালে ব্যাটিং লাইনআপ আরও নড়বড়ে হয়ে পড়ে। শনিবার তাই মুশফিককে বোঝাতে কক্সবাজার গেলেন দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার। দু'পক্ষের আলাপ শেষে স্বস্তি নিয়েই ঢাকায় ফিরেছেন নির্বাচকরা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগে বিতর্ক চাপা দিতে পারা ভালো দিক। পাকিস্তানে খেলতে না যাওয়ায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম টেস্টে মুশফিককে না নেওয়ার কথা বলেছিলেন প্রধান নির্বাচক নান্নু। প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও টেস্ট দলে বারবার পরিবর্তনের কথা তুলে ধরেছিলেন সংবাদ সম্মেলনে। বিসিবির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তমতো কাজ করছিলেন তারা। সর্বশেষ এপ্রিলে পাকিস্তানে খেলতে যাওয়ার শর্ত জুড়ে দেওয়ারও চেষ্টা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত যে হৃদ্যতাপূর্ণ একটা সমাধানে পৌঁছানো গেছে, সেটাই স্বস্তির। মুশফিকের ফেরার টেস্টের দল থেকে মাহমুদুল্লাহ ছাড়াও বাদ পড়ছেন পেসার রুবেল হোসেন, আল-আমিন হোসেন। আল-আমিনের ইনজুরিতে আর রুবেলকে টেস্টে চায় না ম্যানেজমেন্ট। এ ছাড়া বিয়ের জন্য ছুটি নিয়েছেন সৌম্য সরকার। পাকিস্তানে খেলতে যাওয়া ১৪ জনের টেস্ট স্কোয়াড থেকে চারজনই থাকছেন না ঢাকা টেস্টে। বিসিএলের ভালো খেলায় বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের ফেরার সম্ভাবনা বেশি।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত
আরও

Umar's destiny in his own hands: Misbah

৩ ঘণ্টা, ৫ মিনিট আগে

Umar's destiny in his own hands: Misbah

৩ ঘণ্টা, ৫ মিনিট আগে

UEFA issues raft of fines to European clubs

৩ ঘণ্টা, ১১ মিনিট আগে