দায় কি শুধু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের?

বাংলা নিউজ ২৪ প্রকাশিত: ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২০:০০

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিটা ‘হয়তো’ স্বাস্থ্য বিভাগ কিছুটা বাগে আনতে শুরু করেছিলো। কিন্তু আমাদের অদূরদর্শী আচরণ পুরো পরিস্থিতিতে মুড়িঘণ্টের ডালের মতো ঘুঁটে দিয়ে চলে গেলো। করোনা ভাইরাসটাকে নিজেরাই সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার এই মহাযজ্ঞ পুরস্কার পাওয়ার দাবি রাখে! ভাবুন: - স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হলো। সবাই বাচ্চাকাচ্চা নিয়ে চলে গেলো কক্সবাজার, সাজেক। - ‘সাধারণ ছুটি’ ঘোষণা করা হলো। সব মানুষ এটাকে মনে করলো বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার ছুটি। নাড়ির টানে বাস-ট্রাক-লঞ্চ-ট্রেন ভরে সবাই বেরিয়ে পড়লো। যেন এক উৎসব! - ছুটি শেষে আপনাদের দপ্তর প্রধানরা অফিস-কারখানা বন্ধ রাখবেন কী না তাই সিদ্ধান্ত নিতে পারলো না, আপনারাও হৈ হৈ রৈ রৈ করে আবার ফিরে এলেন শহরে। আবারো উৎসব! - তাহলে লাভ কী হলো এই কয়দিন ঘরে থেকে? কার জন্য, কীসের জন্য ঘরে থাকলেন?! - লাভ কী হলো, আমাদের এতো এতো উপদেশের? - তাহলে এখন আর হটলাইনে ফোন দিলেই কী, আর না দিলেই বা কী? এখন আর ডাক্তাররা-নার্সরা চিকিৎসা সেবা দিলেই কী, আর না দিলেই বা কী? এখন আর প্রাইভেট চেম্বার খুলে রাখলেই কী, আর না রাখলেই বা কী? এখন ১ জায়াগার বদলে দেশের ১০ জায়গায় টেস্ট করালেই কী, আর না করলেই বা কী? প্রতিদিন নতুন কতো জন আক্রান্ত হলো, নতুন কতো জন মারা গেলো, এটাই বা শুনে লাভ কী? - পুরো জাতির অপরিণামদর্শিতার দায় কি শুধু স্বাস্থ্য বিভাগের? শুধু একটি মন্ত্রণালয়ের? স্বাস্থ্য বিভাগের কথা বলাতে একটা জিনিস মনে পড়লো। আমি গ্রামে বড় হইনি। তবে গ্রামের ‘তেলের ঘানি’র গল্প শুনেছি। একটা গরু বা বলদ দিয়ে ঘানিতে তেল ভাঙানো/মাড়াই করা হয়। গরু বা বলদটার কাঁধে একটা ‘জোঁয়াল’ দিয়ে তাকে চক্রাকারে একই পথে হাঁটানো হয়। গরু থেমে গেলে তাকে চটাং করে আঘাত করা হয়।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
আরও

The Great Lockdown

২ ঘণ্টা, ৪৯ মিনিট আগে

OP-ED: The law and order president

৩ ঘণ্টা, ১৪ মিনিট আগে

OP-ED: What dads can do

৩ ঘণ্টা, ১৫ মিনিট আগে

ED: Saving nature is saving ourselves

৪ ঘণ্টা, ৪৫ মিনিট আগে

ED: But let the target be realistic

৪ ঘণ্টা, ৪৫ মিনিট আগে

OP-ED: King Covid

৬ ঘণ্টা, ১৫ মিনিট আগে

OP-ED: Not so smart now, are we?

৬ ঘণ্টা, ১৫ মিনিট আগে

OP-ED: Where do the other patients go?

৬ ঘণ্টা, ১৫ মিনিট আগে