চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন সুমন

ইত্তেফাক প্রকাশিত: ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০৫:৪৮

‘আমার করোনা হয়নি অথচ পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে করোনার জন্যই আমাকে মারা যেতে হবে...’ ব্যক্তিগত ফেসবুকে সুমন চাকমার সেই স্ট্যাটাস সত্যি হলো। তার সেই শঙ্কা বাস্তবে পরিণত হলো। গতকাল সোমবার চিকিত্সাবঞ্চিত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র সুমন চাকমা। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে হাসপাতালে ঘুরেও ‘সেবাকে ব্রত হিসেবে নেওয়া’ চিকিৎসকদের কারো মন গলাতে পারেননি। করোনার আতঙ্কে সবাই ফিরিয়ে দিয়েছেন হাসপাতালের গেট থেকে। উপায় না পেয়ে গ্রামের বাড়ি ফিরে গেছেন। সেখান থেকে একেবারে না ফেরার দেশেই চলে গেলেন সুমন চাকমা। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সুমন। তার বাবা সুপেন চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে চিকিত্সাবঞ্চিত হয়ে সুমন মারা যান। খাগড়াছড়ি জেলা সদর উপজেলার আগালাশিং পাড়ার দাতকুপ্যা গ্রামের বাসিন্দা সুমন। পড়তেন ঢাবির শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে। তিনি ২০১৫-১৬ সেশনের ছাত্র ছিলেন। পাহাড়ি জীবনের নানা প্রতিকূলতা পেরিয়ে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরিয়ে এক বুক স্বপ্ন দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। ২০১৮ সালের জুনে হঠাৎ তার ফুসফুসে বাসা বাঁধে ক্যানসার। সমাজের বিত্তবানদের সহায়তায় চিকিৎসাও চলছিল তার। ভারতে চিকিৎসা নিয়ে দেশে আসেন।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত
আরও