সাম্প্রতিক ধ্বংসযজ্ঞ

প্রথম আলো প্রকাশিত: ০৮ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৯

হেফাজতের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চট্টগ্রামের হাটহাজারীসহ বিভিন্ন স্থানে প্রায় ১০০ কোটি টাকার সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। এর মধ্যে সরকারি সম্পদ যেমন আছে, তেমনি আছে বেসরকারি ও ব্যক্তিমালিকানাধীন সম্পত্তি। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়।


প্রথম আলোর সরেজমিন প্রতিবেদন অনুযায়ী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সুরসম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তনের ভেতরে কিছুই আর অবশিষ্ট নেই। ৫৫০টি চেয়ার, ২০ সেট সোফা, ২২টি শীতাতপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্রসহ সবকিছু পুড়ে অঙ্গার হয়ে গেছে। শহরটিতে অন্তত ৫৮টি প্রতিষ্ঠান ও স্থাপনায় হামলা হয়। এগুলোর মধ্যে ৩১টি সরকারি ও আধা সরকারি প্রতিষ্ঠানে হামলা হয়েছে। এর বাইরে ১২টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, তিনটি বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, একটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান, একটি মন্দির, তিনটি ব্যক্তিগত ও দলীয় কার্যালয় এবং আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতাদের সাতটি বাড়ি। ২৬টিতে আগুন দেওয়া হয়েছে। সরকারি হিসাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিন দিনে সংঘর্ষে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। হেফাজতে ইসলামের দাবি অনুযায়ী, এই সংখ্যা ১৫। এ ছাড়া হাটহাজারীতে মারা গেছেন চারজন।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত