‘কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে’

মানবজমিন প্রকাশিত: ০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, কওমি শিক্ষার সর্বোচ্চ ডিগ্রি জাতীয়ভাবে সম্মান দিয়ে ইসলামিক স্টাডিজ-এ মাস্টার্সের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। যদি ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম হেফাজত চালিয়ে যায়, অপরাধমূলক কাজ করতে থাকে, তাহলে ডিগ্রির যে স্বীকৃতি সে বিষয়টি নিয়ে বিবেচনা করে দেখতে হবে। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণ করতে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষা উপমন্ত্রী  এসব কথা বলেন। নওফেল বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের উস্কানি দিয়ে মাঠে নামানো হচ্ছে।  বিভিন্ন দাঙ্গা-হাঙ্গামায় ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব কাজ থেকে কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের বিরত থাকতে হবে। তিনি বলেন, আজ থেকে কওমি মাদ্রাসাগুলোর বিষয়ে মনিটরিং শুরু হবে। করোনাকালীন অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো এই মাদ্রাসাগুলোও  বন্ধ রাখতে হবে। যারা খোলা রাখবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এতিমদের জন্য শুধুমাত্র এতিমখানা খোলা রাখা হবে। পুলিশ প্রশাসনের কাছেও এই বিষয়ে  নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, অপরাধ কেউ করলে প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করবে। রাজনীতি কেউ করতে চাইলে রাজনৈতিক কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করবে। কিন্তু রাজনীতি করবো না, রাজনৈতিক কর্মী না আমি, আবার রাজনীতির নাম করে জ্বালাও-পোড়াওয়ের মতো ঘটনা ঘটাবো। এইসব কোনোভাবেই মেনে নেয়া হবে না। মানুষের ভোগান্তি, জানমালের ক্ষতি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। আওয়ামী লীগের নেতারা বিভিন্ন জায়গায় যাচ্ছেন। ‘অ্যাকশান চলমান আছে। টিকাদানকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ  হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সাহেনা আখতার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত