সিলেটে মেরিন একাডেমির যাত্রা শুরু

মানবজমিন প্রকাশিত: ০৭ মে ২০২১, ০০:০০

সিলেটে যাত্রা শুরু করলো মেরিন একাডেমি। গতকাল বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ একাডেমির উদ্বোধন করেন। সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকার জালালাবাদ চেঙ্গেরখাল নদীর তীরবর্তী এলাকায় প্রায় ১শ’ ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত সিলেট মেরিন একাডেমি। ২০১২ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকার দেশের বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও পাবনায় ৪টি মেরিন একাডেমি স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। সিলেট-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সরকারের সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের প্রচেষ্টায় তার নির্বাচনী এলাকা সিলেট সদর উপজেলার হাটখলা ইউনিয়নের বাদাঘাট এলাকার চেঙ্গেরখাল নদীর পারে সিলেটের প্রথম জলপথের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সিলেট মেরিন একাডেমি স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়। পরে ২০১২ সালের জুন মাসে প্রতিষ্ঠানটির জন্য ১০ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম শুরু হয়। আর ২০১৩ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর সিলেট মেরিন একাডেমির কাজের আনুষ্ঠানিক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনে গণপূর্ত বিভাগের তত্ত্বাবধানে ১০৭ কোটি টাকা ব্যয়ে সিলেট মেরিন একাডেমির অবকাঠামো নির্মাণকাজ পুরোদমে শুরু হয় ২০১৭ সালে। এর আগে এ প্রকল্পের মাটি ভরাটসহ অন্যান্য কাজ শেষ করা হয়। প্রকল্পের আওতায় ছোট-বড় ২০টি বহুতল ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। এসবের মধ্যে রয়েছে সুরম্য একাডেমিক ভবন, ছাত্রাবাস, ৩টি আবাসিক ভবন, জিমনেসিয়াম, দৃষ্টিনন্দন মসজিদ, প্যারেড গ্রাউন্ড ও সুইমিংপুল। গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্পের ৯৯ ভাগ কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। শুধুমাত্র গ্যাস সংযোগ বাকি রয়েছে। সেটাও দ্রুত সময়ের মধ্যে সংযোগ স্থাপন হবে বলে জানা গেছে। এদিকে, মেরিন একাডেমির প্রথম ব্যাচে ৫০ জন ক্যাডেট ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং ও নটিক্যাল শাখায় ২৫ জন করে শিক্ষার্থী রয়েছেন। বর্তমানে তারা চট্টগ্রাম মেরিন একাডেমিতে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। আগামী জুন অথবা জুলাইয়ে সিলেট ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করা হতে পারে।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত