গৌরীপুরে মেয়র, ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

মানবজমিন প্রকাশিত: ০৭ মে ২০২১, ০০:০০

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান শুভ্র খুনের মামলায় মেয়র ও তার দুই ভাই ও  বিএনপির এক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে ডিবি পুলিশ। গতকাল সকালে ময়মনসিংহ আদালতে পুলিশ পরিদর্শক প্রসূন কুমার সেন এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ এ খবর নিশ্চিত করেছেন। আসামিরা হলেন- গৌরীপুর পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, তার ছোট ভাই গৌরীপুর সরকারি কলেজের ছাত্রদল সভাপতি সৈয়দ তৌফিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগ কর্মী সৈয়দ মাজাহারুল ইসলাম জুয়েল, উপজেলা বিএনপির একাংশের যুগ্ম আহ্বায়ক ও ময়লাকান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রিয়াদ উজ্জামান রিয়াদ, তার ছোটভাই মাসুদ পারভেজ কার্জন, গৌরীপুর পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাকিব আহমেদ রেজা, উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য মোজাম্মেল হক, রিয়াদ উজ্জামান রিয়াদের খালাতো ভাই খাইরুল ইসলাম, ছাত্রদলকর্মী রিফাত, ট্রাকচালক মো. আবু হানিফা, উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, যুবদলকর্মী মজিবুর রহমান, ছাত্রদল কর্মী শরীয়তউল্লাহ ওরফে সুমন, যুবদলকর্মী রাসেল মিয়া। এরা সবাই এজাহারনামীয় আসামি। তদন্তকালীন সাক্ষ্য প্রমাণে আরো পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কামাল মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পলাতক রয়েছেন মো. মাইনউদ্দিন, শরীফুল ইসলাম নাঈম, রুহুল আমীন, শাহজাহান মিয়া। এদের মধ্যে প্রথম তিনজন একই পরিবারের এবং তারা উচ্চ আদালতের জামিন রয়েছেন। অভিযুক্ত আসামিদের মধ্যে তিনজন উচ্চ আদালতের জামিনে মুক্ত আছেন। নয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রয়েছেন। বাকিরা পলাতক রয়েছেন। মামলায় ১৭ জন সাক্ষ্য দিয়েছে। আসামিদের মধ্যে অধিকাংশই বিএনপির নেতাকর্মী। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. শাহ কামাল আকন্দ বলেন, নিহতের সঙ্গে উপজেলার বিভিন্ন দলের নেতাদের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক বিরোধ ও ক্ষোভ ছিল। শুভ্র হত্যাকাণ্ডটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
এই সম্পর্কিত

PM pays homage to Sheikh Mujib on 72nd AL anniv

৭ ঘণ্টা, ১৬ মিনিট আগে