ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বৃষ্টির চিত্র। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টিতে ভোগান্তি

আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়ে বাংলাদেশ আবহওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক জানান, এ বৃষ্টিপাত আরও চারদিন অব্যাহত থাকতে পারে।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৪ জুলাই ২০১৮, ২৩:০১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৯:০০
প্রকাশিত: ২৪ জুলাই ২০১৮, ২৩:০১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৯:০০


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বৃষ্টির চিত্র। ছবি: সংগৃহীত

(ইউএনবি) বর্ষা মৌসুমের তপ্ত রোদে মানুষের জীবন যখন অতিষ্ঠ, ঠিক তখনই প্রকৃতি দান করল নির্মল বৃষ্টি। কিন্তু কোনো কিছুই যে অতিরিক্ত ভালো নয়, তার অন্যতম উদাহরণ দুইদিনের বৃষ্টিতে ঢাকাবাসীর ভোগান্তি। গত সোমবার দুপুর থেকে টানা দুইদিনের বৃষ্টিতে রাজধানীর অনেক অঞ্চল প্লাবিত হয়েছে, বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার অলি-গলির পাশাপাশি কোনো কোনো এলাকার মহাসড়কেও জমেছে পানি।

আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়ে বাংলাদেশ আবহওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক জানান, এ বৃষ্টিপাত আরও চারদিন অব্যাহত থাকতে পারে।

টানা বৃষ্টিতে নগরীর মোহাম্মাদপুর, ধানমণ্ডি, কারওয়ানবাজার, খিলগাঁও, মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা, মতিঝিল, পল্টন, কাজিপাড়া, রোকেয়া সরণি, শেওরাপাড়া, কাজীপাড়া এবং মিরপুর-১০ এলাকার বাসিন্দারা পড়েছেন ভোগান্তিতে। এসব এলাকায় জমে থাকা পানি একদিকে যেমন যানজটের সৃষ্টি করছে, অন্যদিকে অনেক এলাকায় পর্যাপ্ত যানবাহনের অভাবে অনেককে পায়ে হেঁটেও গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

ঢাকাবাসীর এই ভোগান্তিতে সুযোগ নিতে দেখা গেছে সিএনজিচালিত অটোরিকশাা ও অন্যান্য পরিবহনকে। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েই গন্তব্যে যেতে বাধ্য হচ্ছেন অনেকে।

মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ৫৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে জানিয়ে আবহাওয়া অধিদফতর বলছে আগামী ২৮ জুলাই পর্যন্ত এই বৃষ্টিপাত চলমান থাকতে পারে।

আর চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে দেশের সর্বোচ্চ ২০৫ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী অথবা অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...