রাসেলকে ক্ষতিপূরণ দিতে গ্রীন লাইনের মালিককে মৌখিক নির্দেশ দেন আদালত। ছবি: সংগৃহীত

বিকেলের মধ্যে রাসেলকে ক্ষতিপূরণের কিছু অংশ পরিশোধের নির্দেশ

গ্রীন লাইন পরিবহনের পক্ষের আইনজীবী আদালতে বলেন, মো. আলাউদ্দিন বয়স্ক ও অসুস্থ। তার পক্ষে বারবার আদালতে আসা সম্ভব না।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫৫ আপডেট: ১০ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৩২
প্রকাশিত: ১০ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:৫৫ আপডেট: ১০ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৩২


রাসেলকে ক্ষতিপূরণ দিতে গ্রীন লাইনের মালিককে মৌখিক নির্দেশ দেন আদালত। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম)  আজ দুপুর ৩টার মধ্যে যতটুকু পারেন রাসেলকে ক্ষতিপূরণ দেন। কিছু টাকা হলেও ক্ষতিপূরণ বুঝিয়ে দেন। এরপর আবার আদালতে আসেন, দুপুরে এ নিয়ে আমরা আমাদের আদেশ দেব। 

১০ এপ্রিল, বুধবার গ্রীন লাইনের মালিক মো. আলাউদ্দিনকে আদালতে এই মৌখিক আদশে দেন বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

গত ৪ এপ্রিল, যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভারে গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসচাপায় পা হারানো প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে ক্ষতিপূরণ দিতে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত ফের সময় বেঁধে দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। ওইদিন আদালতের আদেশ বস্তবায়ন না করায় গ্রীন লাইন পরিবহনের ম্যানেজারকে তলব করেন আদালত। এ দিন পরিবহনটির মালিক মো. আলাউদ্দিনকে আদালতে হাজির হয়ে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। নইলে ১১ এপ্রিল গ্রীন লাইনের সব টিকেট বিক্রি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

এদিকে আজ বেলা ১১টায় হাইকোর্টে হাজির হন পরিবহনটির মালিক মো.আলাউদ্দিন। এসময় গ্রীন লাইন পরিবহনের পক্ষের আইনজীবী আদালতে বলেন, আলাউদ্দিন বয়স্ক ও অসুস্থ। তার পক্ষে বারবার আদালতে আসা সম্ভব না। রাসেলের ক্ষতিপূরণের টাকা দিতে আরও এক মাসের সময় চান তিনি।

তখন আদালত বলেন, ‘এটা তো কোনো দুর্ঘটনা না। ছেলেটাও একটা চালক। আপনারা একবার তার খবরও নিলেন না। মানবিক একটা দিক বলেও কিছু আছে। ছেলেটা হাসপাতালে চিকিৎসা নিলো। একটা পা কাটা পড়েছে আরেকটা পা চলে যাওয়ার পথে। আপনারা কোনো খোঁজখবর নেননি। আপনারা আপনাদের কাজ করেন, এরপর আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত নেব। আমরা আমাদের মতো আদেশ দেব।’

আপনারা দুপুর ৩টায় আবার আদালতে আসেন। এই সময়ের মধ্যে কিছুটা হলেও রাসেলকে ক্ষতিপূরণ দিতে গ্রীন লাইনের মালিককে মৌখিক নির্দেশ দেন আদালত। হাইকোর্ট বলেন, ‘যতটুকু পারেন, ক্ষতিপূরণ দেন।’

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


loading ...