আমিরের অবসরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

আমিরের অবসরে সাবেকদের ক্ষোভ

সমবেদনার কোনো ছাপ নেই পাকিস্তানে। বরং টেস্ট থেকে আমিরের অবসরে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০১৯, ২২:৩৩ আপডেট: ২৮ জুলাই ২০১৯, ২২:৩৩
প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০১৯, ২২:৩৩ আপডেট: ২৮ জুলাই ২০১৯, ২২:৩৩


আমিরের অবসরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দীর্ঘ পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন ২০১৬ সালে। এরপর আবারও নিয়মিত হয়েছেন জাতীয় দলের জার্সিতে। কেবল তাই নয়, পাকিস্তানের হয়ে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠিত ২০১৯ বিশ্বকাপেও খেলেছেন মোহাম্মদ আমির। কিন্তু হঠাৎ করেই টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন বাঁহাতি এই পাকিস্তানি পেসার।

আমিরের অবসরের সিদ্ধান্তে রীতিমতো বিস্মিত বিশ্ব ক্রিকেট। অনেকেই জানিয়েছেন সমবেদনা। তবে সমবেদনার কোনো ছাপ নেই পাকিস্তানে। বরং টেস্ট থেকে আমিরের অবসরে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা। সেই ক্ষোভ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অকোপটে প্রকাশ করেছেন অনেক নামিদামি সাবেক ক্রিকেটার।

এখানেই শেষ নয়। সাবেক ক্রিকেটারদের ক্ষোভের সঙ্গে মিশেছিল যেন রাজ্যের হতাশাও। ক্ষোভ আর হতাশা মিলে ঝরেছে তীব্র সমালোচনা হয়ে। সবমিলিয়ে টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ায় আমিরকে রীতিমতো তুলোধুনো করেছেন শোয়েব আখতার, ওয়াসিম আকরামের মতো সাবেক ক্রিকেটাররা।

ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ওয়াসিম আকরাম লেখেন, ‘টেস্ট ক্রিকেট থেকে আমিরের এই অবসর আমাকে অবাক করেছে। ২৭-২৮ বছর বয়সে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের সেরাটা দেওয়া যায়। এ সময় একজন ক্রিকেটার ফর্মের চূড়ান্ত পর্যায়ে থাকতে পারে। তাছাড়া টেস্ট ক্রিকেট সেই জায়গা যেখানে শ্রেষ্ঠত্বের বিচার হবে। এটাই সর্বোচ্চ ফরম্যাট।’

কিংবদন্তি এই পেসার আরও লিখেছেন, ‘আমিরকে অস্ট্রেলিয়ায় দুটি টেস্টে আর ইংল্যান্ডে তিনটি টেস্টে ভীষণভাবে দরকার ছিল দলের।’

আমিরের এমন অবসরে পাকিস্তান ক্রিকেটের বিপর্যয় দেখছেন শোয়েব আখতার। আমিরের দেখাদেখি অন্য ক্রিকেটাররাও অবসরের ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ হতে পারে বলে মনে করছেন সাবেক এই পাকিস্তানি পেসার। তার ভাষ্য, ‘আমিরকে দেখে এবার হয়তো হাসান আলি, ওয়াহাব রিয়াজ, জুনায়েদ খানরা অবসর নিয়ে ফেলবে। আমি বুঝতে পারছি না পাকিস্তান ক্রিকেটে কী হচ্ছে এসব! মাত্র ২৭ বছর বয়সে কী করে আমির টেস্ট ক্রিকেটকে ছেড়ে দিতে পারে?’

আমিরকে সরাসরি কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস আরও লিখেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেট আমিরের জন্য অনেক করেছে। ফিক্সিংয়ের পর আবার জাতীয় দলে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছে। এখন সে ফর্মে ফিরেছে, আর এখনই অবসর? ব্যাপারটা আমার বোধবুদ্ধির বাইরে।’

টেস্ট থেকে আমিরের অসবরের সিদ্ধান্তে একইভাবে হতাশা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা ও রশিদ লতিফ। আমিরের অবসরের জন্য অবশ্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকেও (পিসিবি) দায়ী করছেন রশিদ লতিফ। আর রমিজ রাজা মনে করছেন, এটা ছিল আমিরের ঋণ শোধ করার সময়, অবসরের নয়।

রমিজ রাজা তার টুইটে লিখেছেন, ‘২৭ বছর বয়সে আমিরের টেস্ট ক্রিকেট ছাড়াটা খুব হতাশাজনক। তারকাদের কিংবদন্তি করে তোলে এমন দুর্দান্ত ফরম্যাট থেকে সরে যাওয়াটা দৃষ্টিকটু। এটা তার দেনা শোধ করার সময় ছিল, অবসরের নয়।’

গেল ২৬ জুলাই, শুক্রবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে টেস্ট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন মোহাম্মদ আমির। ২৭ বছর বয়সী এই পাকিস্তানি পেসার জানান, সাদা পোশাকে আর দেখা যাবে না তাকে। তবে পাকিস্তানের হয়ে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত খেলা চালিয়ে যাবেন তিনি।

প্রিয় খেলা/রুহুল 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...