বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল ও হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদ। ছবি: সংগৃহীত।

তাবিথ আউয়াল ও এ কে আজাদকে দুদকে তলব

তাবিথ আউয়াল ও এ কে আজাদের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:৩৪ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১১:৩২
প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:৩৪ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১১:৩২


বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল ও হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদ। ছবি: সংগৃহীত।

(প্রিয়.কম) বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালহা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে আজাদকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

২৪ এপ্রিল, মঙ্গলবার পৃথক চিঠির মাধ্যমে তাদের সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তলব করা হয়েছে।

দুদকের উপ-পরিচালক আখতার হামিদ ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত চিঠিতে আগামী ৮ মে সকাল ১০টায় তাবিথ আউয়ালকে দুদকে হাজির হতে বলা হয়েছে। তাবিথের মানি লন্ডারিং, সন্দেহজনক ব্যাংক লেনদেনসহ জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছে সংস্থাটি।

চলতি বছর বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে এবং বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে দুদক।

এদিকে দুদকের পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে আগামী ৯ মে সকাল ১০টায় এ কে আজাদকে দুদকে হাজির হতে বলা হয়েছে। এ কে আজাদের মূসক ও আয়কর ফাঁকি দেওয়ার মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ তদন্ত করছে সংস্থাটি।

অভিযোগের বিষয়ে হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদের বক্তব্য জানতে তলব করেছে দুদক।

এর আগে গত ২০ মার্চ অনুমোদিত নকশা ছাড়া বাড়ি নির্মাণের অভিযোগে এ. কে. আজাদের গুলশান-২ নম্বরের ৮৬ নম্বর রোডের ১ নম্বর বাড়িটি ভাঙে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)।

দোতলা বাড়িটির রাস্তাসংলগ্ন বড় একটি অংশ ভাঙার পর তা স্থগিত রাখা হয়। এর পরদিনই হা-মীম গ্রুপের এমডি এ কে আজাদকে তলব করে চিঠি দেয় দুদক। চিঠিতে তাকে ৩ এপ্রিল দুদকে হাজির হতে বলা হয়।

দেশের বাইরে থাকায় সময় চেয়ে দুদকে আবেদন করেন এ কে আজাদ। চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে ৯ মে তাকে হাজির হতে বলা হয়।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


loading ...